পৃথিবীর কাছে আসছে এক গ্রহাণু। গ্রহাণুটির নাম ২০২১কেটি-১। এটি আকারে আইফেল টাওয়ারের মতো বড়। নাসার হিসেবে, এর ব্যাস ৪৯২ ফুট থেকে ১০৮২ ফুটের মধ্যে।।

প্রায় ২৬ হাজার গ্রহাণুর উপরে নজরদারি চালায় নাসা। সেই তালিকায় এটি ‘সম্ভাব্য বিপজ্জনক’ গ্রহাণুগুলোর মধ্যে এটি একটি। আজ(১জুন ) মঙ্গলবার এটি পৃথিবীর সবচেয়ে কাছ দিয়ে যাবে জানোয়েছেন নাসা ।এর গতি হবে ঘণ্টায় ৬৪,৩৭৪ কিলোমিটার। ধাতু-পাথরের এই খণ্ডটি থেকে পৃথিবীর কোনও বিপদের আশঙ্কা নেই।

সূর্যকে উপবৃত্তাকার পথে ঘুরতে ঘুরতে গ্রহাণুটি পৃথিবীর সবচেয়ে কাছে আসবে, পৃথিবী থেকে তখন তার দূরত্ব হবে ৪৫ লাখ কিলোমিটার।

৪৬ লাখ কিলোমিটারের মধ্যে আসা যে কোনও মহাজগতিক বস্তুকেই পৃথিবীর জন্য ‘সম্ভাব্য বিপজ্জনক’ বলে ধরা হয়ে থাকে। এর আগে গত ২১ মার্চ ২০০১এফও৩২ নামে একটি গ্রহাণু অনেক কাছ দিয়ে, পৃথিবীর ২০ লাখ কিলোমিটার দূর দিয়ে গিয়েছিল। এই দূরত্ব পৃথিবী ও চাঁদের দূরত্বের চেয়ে প্রায় সওয়া পাঁচ গুণ বেশি।

"গুগল নিউজ এ রংপুর ক্রাইম নিউজের সর্বশেষ খবর পড়তে ক্লিক করুন"
গুগল নিউজ এ রংপুর ক্রাইম নিউজের সর্বশেষ খবর পড়তে ক্লিক করুন।

পৃথিবীর কাছাকাছি আসা গ্রহাণুগুলোর মধ্যে এই গ্রহাণুটি ছিল সবচেয়ে বড়। এই আকারের বা তার চেয়ে বড় যে গ্রহাণুগুলো পৃথিবীর কাছ দিয়ে গেছে , তার সবগুলোর গতিবিধিই নাসার জানা। নাসার মতে, আগামী শতকেও এই গ্রহাণু থেকে আমাদের এই গ্রহের বিপদের কোনও আশঙ্কা নেই।

আরসিএন ২৪ বিডি. কম
১ জুন ২০২১