কবির চৌধুরি জয়

পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া উপজেলায় বিপন্ন প্রজাতির গন্ধগোকুলের তিন ছানাকে উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানা যায় ।

বৃহস্পতিবার (২০ মে) উপজেলার দেবনগড় ইউনিয়নের ব্রহ্মতলি এলাকার মরিচ ক্ষেত থেকে গন্ধগোকুলের ঐ তিন ছানাকে উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

স্থানীয়দের দেয়া তথ্যে জানা যায়, বৃহস্পতিবার ঐ এলাকার ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি নুর আলমের মরিচ ক্ষেতে মরিচ তুলছিলেন কয়েকজন নারী চাষী। মরিচ তোলার একসময় তারা ক্ষেতের মাঝখানে একটি গর্তের মধ্যে গন্ধগোকুল দেখতে পান ।

মানুষের উপস্থিতি টের পেয়ে মা গন্ধগোকুলটি একটি ছানা নিয়ে পালিয়ে যায় ঐ গর্ত থেকে । গর্তে থাকা বাকি তিনটি ছানা খাদ্য সংকটে অসুস্থ হয়ে পড়েছিল বলে জানান তারা।

পরে ছাত্রলীগ নেতা নুর আলম ছানা তিনটিকে উদ্ধার করে বাড়ি নিয়ে আসেন।
এদিকে এ খবর ছড়িয়ে পড়লে গন্ধগোকুলের ছানা দেখতে ভিড় জমায় এলাকাবাসীরা।

নুর আলম সিদ্দিক রংপুর ক্রাইম নিউজকে জানান, ছানা তিনটি খাদ্য সংকটে হয়তো অসুস্থ হয়ে পড়েছিল সেখানে । নড়াচড়া করতে পারছিল না ছানা তিনটি। পরে আমি তাদের বাড়িতে এনে খাবার খেতে দেই। এখন ছানাগুলো পুরোপুরি সুস্থ রয়েছে । বনবিভাগের কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করছি আমি । তাদের সাথে পরামর্শ করে ছানা তিনটির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

পঞ্চগড় বন বিভাগের বিট কর্মকর্তা সুলতানুল ইসলাম রঅংপুর ক্রাইম নিউজকে বলেন, ঐ ৩ ছানাকে কি করা যায় সে বিষয়ে ডিএফওর সঙ্গে কথা বলা হচ্ছে।

রাতে দিনাজপুর বন বিভাগের কর্মকর্তা (ডিএফও) বশিরুল আল মামুন রংপুর ক্রাইম নিউজকে জানান, গন্ধগোকুল একটি নিশাচর প্রাণী। এরা বনজঙ্গলে থাকে। তারা ইঁদুর, পোকাসহ বিভিন্ন প্রাণী খেয়ে বেচে থাকে। সে আত্মরক্ষার্থে নিজের শরীর থেকে একটি সুঘ্রাণ ছেড়ে দেয় বলে জানান তিনি। এজন্য এ প্রাণীর নামকরন করা গন্ধগোকুল বলে জানা যায় । বর্তমানে বনজঙ্গল কমে যাওয়ায় খাদ্যের সন্ধানে লোকালয়ে চলে আসে এই প্রাণীগুলো। উদ্ধার হওয়া গন্ধগোকুলটি বিপন্ন প্রজাতির একটি প্রানী।

আরসিএন ২৪ বিডি.কম / ২০ মে ২০২১
কবির চৌধুরি জয়