স্টাফ রিপোর্টার
সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের মুক্তি, মামলা প্রত্যাহার ও তাকে হেনস্তা করার ঘটনায় নিরপেক্ষ তদন্তের মাধ্যমে দোষী ব্যক্তিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) বলে জানা গেছে।

জানা গেছে বুধবার (১৯ মে) রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাব চত্বরে এই অবস্থান কর্মসূচি এবং মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এতে বিএফইউজেসহ সাংবাদিকদের অন্যান্য সংগঠন একাত্মতা প্রকাশ করে বলে জানা যায় ।

অবস্থান কর্মসূচিতে বক্তারা জানান, সাংবাদিকরা কোনো তথ্যের জন্য ফাইল ধরে টানাটানি করে না,এমন কোন নজির নাই।

সরকার পক্ষের লোকেরাই সাংবাদিকদের তথ্য সরবরাহ করে থাকে। রোজিনা ইসলামের বিরুদ্ধে আনা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অভিযোগ নিতান্তই হাস্যকর ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।

তারা বলেন, পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে সাংবাদিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করাসহ তাদের সর্বাত্মক সহযোগিতা করা সরকারি কর্মচারীদের দায়িত্ব ও কর্তব্য। রোজিনা ইসলামের উপর দুর্নীতির অভিযোগে অভিযুক্ত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উদ্দেশ্যমূলকভাবে যে আচরণ করেছে, তার দায় সরকার কোনোভাবেই এড়াতে পারে না বলে মনে করছি আমরা।

সমাবেশ থেকে বৃহস্পতিবারের (২০ মে) মধ্যে রোজিনা ইসলামকে জামিনে মুক্তি দেওয়া এবং সাংবাদিক নেতাদের সমন্বয়ে উচ্চপর্যায়ের নিরপেক্ষ তদন্ত কমিটি গঠন করে এই ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা গ্রহণের আহ্বান জানানো হয় বলে জানা গেছে। অন্যথায় দেশের সব গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠান ও সংগঠন, সাংবাদিক ইউনিয়ন ও প্রেসক্লাবসহ সাংবাদিকদের বিভিন্ন সংগঠনগুলোর সমন্বয়ে সারা দেশের সাংবাদিকদের নিয়ে বিএফইউজে কঠোর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবে হুশিয়ারি দেন তারা।

প্রথম আলোর সহযোগী সম্পাদক আনিসুল হক জানান, আমরা সাংবাদিকরা সরকারের সহযোগী হিসেবে কাজ করি, আমরা প্রশাসনের সহযোগী হিসেবে কাজ করি। আমরা যদি দুর্নীতির খবর তুলে না ধরি সরকার কীভাবে জানবে দেশে দুর্নীতি চলছে। তাই আমরা সরকারের উপকার করার চেষ্টা করছি বলে মনে করি এবং রোজিনা ইসলাম তার পেশাগত দায়িত্বপালন করে যাচ্ছিলেন সেই নিমিত্তেই। কিন্তু সরকার এবং সাংবাদিকদের মাঝে কোথাও একটা ভুল-বোঝাবুঝি হচ্ছে বলে ধারনা আমার। আমাদের চাওয়া সেগুলো শুধরে সবকিছু ভালো হোক আবার।

আরসিএন ২৪ বিডি.কম / ১৯ মে ২০২১
কবির চৌধুরি জয়