গাজীপুরের চান্দনা চৌরাস্তা এলাকায় হেফাজতে ইসলামের সমর্থকদের সঙ্গে পুলিশের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ রাবার বুলেট ও টিয়ার সেল নিক্ষেপ করে এবং তাঁদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।এ সময় হেফাজতে ইসলাম ও পুলিশের সংঘর্ষ হয়।এ সংঘর্যে পুলিশ ও হেফাজতের সমর্থক কর্মী সহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। আহত ব্যক্তিরা স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে,ভারতের প্রথানমন্ত্রীর বাংলাদেশ সফর এবং মাদ্রাসার ছাত্র হত্যার প্রতিবাদে জুমার নামাজের পর চান্দনা চৌরাস্তা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ থেকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে চান্দনা চৌরাস্তা এলাকায় অবস্থান নেন ।

এ সময় পুলিশ তাঁদের বাধা দিলে এক পর্যায়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন হেফাজতে ইসলামের কসমর্থকরা।হেফাজতের কর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছোড়ে। তাঁদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ টিয়ার সেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। প্রায় ৩০ মিনিট সংর্ষের পর হেফাজতে ইসলামের সমর্থকদের ছত্রভঙ্গ করে পরিস্থিতির নিয়ন্ত্রণ নেয় পুলিশ। এতে পুলিশসহ অন্তত ২০ হেফাজত কর্মী আহত হন।এখন পর্যন্ত কেউ নিহত হয়েছে কি না তা সঠিক ভাবে জানা যায়নি।আহত ব্যক্তিদের স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ করা মোতায়েন রয়েছে।সংঘর্ষের সময় সময় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক প্রায় ৩০-৪০ মিনিট বন্ধ ছিল।

এই ব্যাপারে গাজীপুর মহানগর পুলিশের উপকমিশনার জাকির হাসান বলেন, হেফাজতের কর্মীরা ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে অবস্থান নিয়ে সড়ক অবরোধ করে রাখেন । তাঁদের মহাসড়ক ছেড়ে যেতে বললে তাঁরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছুড়তে থাকে এর ফলে সংঘর্ষ সৃস্টি হয় হেফাজতে ইসলাম এবং পুলিশের মধ্যে। পরে তাঁদের সঙ্গে পুলিশের পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পুলিশ শতাধিক টিয়ার সেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে তাঁদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। বর্তমানে পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। প্রতিপক্ষের ইটপাটকেলের আঘাতে প্রায় আটজন পুলিশ আহত হয়েছে।তাৎক্ষণিক ভাবে তাদের হাসপাতালে পাঠনো হয়।


অনলাইনআপডেট : ২ এপ্রিল,২০২১
আরসিএন২৪বিডি.কম
মেরাজ হৃদয়

আরসিএন ২৪ বিডি.কম / ২ এপ্রিল , ২০২১