ওয়াহিদা খানম হামলা : ৬ দিনের রিমান্ডে ইউএনও অফিসে মালি

9

দিনাজপুর জেলার ঘোড়াঘাটে ইউএনও ওয়াহিদা খানমের ওপর হামলার ঘটনায় বরখাস্তকৃত কর্মচারী রবিউলকে ৬ দিনের রিমান্ড দিয়েছেন আদালত। তিনি ইউএনও অফিসে মালি পদে কাজ করতেন। দিনাজপুরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ইসমাইল এর রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

শনিবার (১২ সেপ্টেম্বর) বিকেলের দিকে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিং এ তথ্য জানিয়েছেন, রংপুর রেঞ্জের পুলিশের ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্য। এই হামলায় ব্যবহত হাতুড়ি এবং মই স্বীকারোক্তি মতো উদ্ধারও করা হয়েছে।

এরআগে শনিবার বিকেল ৫ টায় রবিউল ইসলাম ফরাসকে সিনিয়র জুটশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ইসমাইল হোসেন এর আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন এই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবি’র ওসি ইমাম আবু জাফর। আদালত বিচারক পর্যালোচনা শেষে ৬ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

অন্যদিকে ইউএনও’র উপর হামলার মামলার প্রধান আসামী যুবলীগের বহিষ্কৃত নেতা আসাদুল হককে ৭ দিনের রিমান্ড শেষে শনিবার বিকেলে জেল-হাজতে পাঠানো হয়। তাই রবিউল ইসলাম ফরাসকে রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানোর আগে সংবাদ সম্মেলন করে পুলিশ।

প্রেস ব্রিফিং এ রংপুর রেঞ্জের পুলিশের ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্য ছাড়াও দিনাজপুর জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন, ইউএনও ওয়াহিদা খানম হত্যা প্রচেষ্টা চাঞ্চল্যকর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের ওসি ইমাম আবু জাফরসহ অন্যান্য পুলিশ ককর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আইন প্রয়োগকারী সংস্থার নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তা জানান, ইউএনও ওয়াহিদা খানমের ৫০ হাজার টাকা খোয়া যাওয়ার ঘটনায় মালি রবিউল ইসলাম ফরাসকে ৪ মাস আগে সাময়িক বরখাস্ত করে জেলা প্রশাসনের কার্যালয়ে রাখা হয়। সিসিটিভির ফুটেজ এবং সাময়িক বরখাস্ত ঘটনার বিবেচনায় মালি রবিউল ইসলাম ফরাসকে বৃহস্পতিবার গ্রেফতার করে ডিবি পুলিশ। পরে স্বীকারোক্তি জজবানবন্দীতে সে ঘটনার সবকিছু জানায়।

গুগল নিউজ : রংপুর ক্রাইম নিউজ পড়তে ক্লিক করুন

জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে রবিউল ইসলাম ফরাস ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) বাসভবনে ২০১৯ সালের শেষে অস্থায়ী মালি হিসেবে নিয়োগ পায়। ৪ মাস আগে মালি রবিউল ইসলাম ফরাস ইউএনও ওয়াহিদার বাসা থেকে একটি লাগেজ ইউএনও কার্যালয়ে পৌঁছে দেওয়ার সময় সেখান থেকে ৫০ হাজার টাকা খোয়া যায়। এ ঘটনাটি ইউএনও ওয়াহিদা জেলা প্রশাসককে জানালে জেলা প্রশাসক মালি রবিউল ইসলাম ফরাসকে সাময়িক বরখাস্ত করে জেলা প্রশাসনের কার্যালয়ে নিয়ে আসেন। ফরাসের বাড়ি দিনাজপুরের বিরল উপজেলার বিজোড়া গ্রামে।
আরসিএন ২৪বিডি.কম/ ১২ সেপ্টেম্বর ২০২০
আপডেট সময় :21: 11