ভালোবাসা হতে পারে মন থেকে আবার হতে পারে কিছু সময় দিয়ে সাথে থাকা । আবার কেউ মন থেকে ভালোবাসেন। আবার এমন অনেক মানুষ আছেন, যাঁরা প্রেমটা খুব সহজভাবে নেন । তাঁরা ভাবেন কয়েকমাস আনন্দ, ফূর্তি, ঘোরা, খাওয়া এরপর আর কি ব্যাস তারপর বাবা-মায়ের পছন্দের পাত্রীকে বিয়ে।

আর তারপর বেশ কয়েকটা গুছিয়ে মিথ্যে কথা বলতে পারলেই সব কিছুর কেল্লা ফতে।
তবে এখনও অনেক মেয়ে আছেন, যাঁরা না বুঝেই ভালোবেসে ফেলেন। মন থেকে জড়িয়ে যান সম্পর্কে। কিন্তু পরবর্তীতে যখন ধাক্কা পান তখন বেশ খানিকটা দেরি হয়ে যায়। এরপর সেই সবকিছু সামলে আবার নতুন করে প্রেমে পড়া কিংবা নতুন সম্পর্কে স্বপ্ন দেখা বেশ কষ্টকর। তবে সবার ক্ষেত্রে যে এমনটা হয় তা নয়। অভিজ্ঞতা এক একজনের ক্ষেত্রে একএকরকম।

এখন অনেকেরই পছন্দের সঙ্গীর সঙ্গে আলাপ সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেখান থেকে একে অপরের উপর ভরসা করে এগনো, বিয়ে সবই হচ্ছে। আর তাই প্রথমেই সবটা খারাপ ভেবে নেবেন না। বরং খোলা মনে মিশুন। সঙ্গীকে চিনুন। মানুষের উপর বিশ্বাস জন্মানোর সুযোগ করে দিন। দেখবেন খুব একটা খারাপ অভিজ্ঞতা হবে না। ভুল মানুষ মাত্রই হয়। আপনিও সম্পর্কে এসে ভুল করতেই পারেন। কিন্তু যদি আপনার প্রেমিকের মধ্যে এই লক্ষণ গুলি দেখেন তাহলে বুঝবেন তিনি সত্যিই আপনার যত্ন নেন। ধরা যাক আপনার কোনও এক সামান্য কথা তিনি মনে রেখেছেন। এবং তার বেশ কয়েকমাস পর সেই ইচ্ছেও পূরণ করলেন। আপনি না বলতেই তিনি আপনার মনের কথা বুঝে যান। আপনার শরীরের ব্যাপারে তিনি যত্নশীল তাহলে ধরে নেবেন সেই ব্যক্তি সত্যিই আপনাকে খুব ভালোবাসে।
একসঙ্গে যদি সময় কাটাতে চান

আপনার প্রেমিক যদি সবসময় আপনার সঙ্গে বেশি সময় কাটাতে চান তাহলে কিন্তু মনে রাখবেন তিনি সত্যিই আপনার ভালো চান। এমনকী হাজারো ব্যস্ততার ফাঁকেও তিনি চেষ্টা করেন আপনার সঙ্গে কোয়ালিটি সময় কাটাতে। এমনকী কোথাও যাওয়ার থাকলে একসঙ্গেই যেতে চান।

আপনার মন বুঝে চলেন

কেন আপনি রেগে বা ঠিক কেমন খাবার আপনি পছন্দ করেন আপনার কোন রং পছন্দ এসবের খেয়াল রাখেন তাহলে বুঝবেন সেই ছেলে সত্যিই ভালো। কোনও একদিন কোনও এক কারণে আপনার চোখে খুশির ঝলক দেখেছিল, পরবর্তীতে ঠিক সেই ইচ্ছের কথা মাথায় রেখে আপনার শখ পূরণ করেছে, তাহলে বুঝবেন পছন্দে কোনও খামতি নেই।

নিজের সম্বন্ধে সব সত্যি বলেন

প্রথম থেকেই নিজের জীবন সম্বন্ধে একটাও কথা লুকোননি। আপনার আগে তিনি কজনের সঙ্গে প্রেম করেছেন, কিংবা তাঁর পরিবারের মানুষরা কেমন, পরিবারের আর্থিক সঙ্গতি, বাড়ির পরিবেশ এসব নিয়ে কোনও লুকোছাপা রাখেননি। বরং কীভাবে নিজে কষ্ট করে নিজের পড়াশোনা করেছেন সেকথাও বলেন। সেই ছেলের মধ্যে কিন্তু খুঁত নেই। মনের দিক থেকে পরিষ্কার।

আপনার অনেক ভালো অভিজ্ঞতার সাক্ষী

একসঙ্গে কোথাও ঘুরতে যাওয়া থেকে শুরু করে লুকিয়ে লুকিয়ে অ্যাডভেঞ্চার, আপনার জীবনে সবচেয়ে ভালো মুহূর্ত অভিজ্ঞতা তাঁর সঙ্গেই। সেই সঙ্গে আপনাকে যে কোনও কিছুতেই খুব স্পেশ্যাল ফিল করান। আপনাদের দুজনের একসঙ্গে সময় কাটিয়ে খুব ভালো লাগে, সত্যিই আপনারা ভালো জুটি।

আপনি ভুল করলেও তিনি সেসব পাত্তা দেন না

তাঁর কাছে আপনিই সেরা। আপনার হাজার ভুল, মাথা গরম, ঝগড়া এসবেরও পরও তিনি কিছুতেই রাগ করেন না। বরং আপনাকে ঠান্ডা মাথায় বোঝান। সবসময় আপনার পাশে থাকেন। আপনাকে সব ব্যাপারে উৎসাহ দেন। তাঁর যাবতীয় কিছু তিনি খুঁজে পান আপনার মধ্যেই।

কাগজের কাপে চা খাচ্ছেন? তিনবার খেলে মারাত্মক ক্ষতি

আপনার সঙ্গেই ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা করছেন

আস্তে আস্তে ছেলেটি ভবিষ্যতের পরিকল্পনা করছে। নিজের চাকরি, কেরিয়ার সেই ভাবে গোছাচ্ছে। আর সঙ্গে কিন্তু আপনাকেও অবহেলা করছে এমনটা নয়। বরং আপনি কি চান, আপনার চাকরি, পড়াশোনা, ভবিষ্যতের উচ্ছে সব কিছু নিয়েই তিনি ভাবেন।মন ছেলেকে ভুল বুঝিয়ে দূরে সরিয়ে দেবেন না। বরং ভবিষ্যতের পরিকল্পনাটা সেরেই ফেলুন তাঁর সঙ্গে।

আপনার সঙ্গে থাকতে পেরে গর্বিত

সবসময় আপনাকে নিয়ে গর্ব অনুভব করেন আপনার প্রেমিক। আপনার প্রতিটি কাজের প্রশংসা করেন। আপনি কোনও উদ্যোগ নিলে সবসময় পাশে থাকেন। নিজের বন্ধুদের সঙ্গে খুব গর্ব করেই আপনার পরিচয় করিয়ে দেয়। এর অর্থ তিনি সত্যিই আপনাকে জীবনে পেয়ে খুশি। সেই সঙ্গে তিনি এটাও মনে করেন তাঁর জীবনে যা কিছু ভালো সব হয়েছে আপনার জন্যেই।

জীবনে সত্যি ভালোবাসার অর্থ বুঝিয়ে দেন

ভালোবাসা তো অনেক রকম হয়। সব সময় উপহারে তার বহিঃপ্রকাশ হয় না। কিংবা সারাদিনে পাঁচবার ফোন করলেই তা হয় না। ভালোবাসা শব্দটা অনেক বড়। আর তা অনেক কিছু দিয়েই বোঝানো যায়য়। এক্ষেত্রে জীবনের ছোট ছোট মুহূর্তগুলোই সবচেয়ে দামি। নিজেদের মুহূর্তকে নিজেদের মতো করে উদযাপন করুন।

বেগম রোকেয়ার ভাস্কর্য ‌‘আলোকবর্তিকা’র উন্মোচন


আরসিএন ২৪ বিডি.কম , ডিসেম্বর ১১, ২০২০
শীতে বাচ্চাদের যেসব খাবার ভুলেও দিবেন না

অনলাইন আপডেট : ৯:২০ পিএম / জিএম
সূত্র ; অনলাইন