ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৩ হাজার ৬৮৯ জন। এছাড়া একই সময়ের মধ্যে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ৯২ হাজার।

দেশটিতে আক্রান্ত ও মৃত্যু প্রায় প্রতিদিনই বাড়ছে বা সামান্য কিছু কমছে। তবে করোনা এ পরিস্থিতির ভয়াবহতা কমার কোনো লক্ষণ নেই।

একদিন আগেই দেশটিতে করোনায় নতুন আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৪ লাখ ১ হাজার ৯৯৩ এবং মারা গেছে ৩ হাজার ৫২৩ জন।

এদিকে গত মাসে জাতির উদ্দেশে এক ভাষণে মোদি বলেছিলেন, করোনার দ্বিতীয় ঢেউ দেশটিতে ঝড়ের মতো আঘাত করেছে।

ভারতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ৯৫ লাখ ৫৭ হাজার ৪৫৭ জন। অপরদিকে এখন পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ২ লাখ ১৫ হাজার ৫৪২ জনের।

এদিকে, উত্তরপ্রদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছে ৩০ হাজার ১৮০ জন। দিল্লিতে ২৫ হাজার ২১৯ জন। সংক্রমণে এরপরেই রয়েছে তামিলনাড়ু, অন্ধ্রপ্রদেশ, রাজস্থান, পশ্চিমবঙ্গ, ছত্তীসগড়, হরিয়ানা, বিহার, গুজরাট, মধ্যপ্রদেশ এবং ওড়িশা। এই রাজ্যেগুলোতে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ১০ থেকে ২০ হাজারের মধ্যে।

ভারতে গত কয়েকদিনে সক্রিয় রোগীর সংখ্যাও লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। বর্তমানে দেশটিতে মোট সক্রিয় রোগী রয়েছেন ৩৩ লাখ ৪৯ হাজার ৬৪৪ জন। বিপুল পরিমাণ সক্রিয় রোগী দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলেছে।

বিভিন্ন রাজ্যের হাসপাতালগুলোতে শয্যা সঙ্কট বেড়ে গেছে। অক্সিজেন সংকটের কারণে মৃত্যুর ঘটনা প্রায় প্রতিদিনই ঘটছে। বিদেশ থেকে অক্সিজেন এনে পরিস্থিতি মোকাবিলার চেষ্টা চালাচ্ছে প্রশাসন।

বর্তমান এই পরিস্থিতির মধ্যেও ভ্যাকসিন কার্যক্রম চলছে। আজ থেকেই ভারতে ১৮ থেকে ৪৪ বছর বয়সীরাও ভ্যাকসিন পাচ্ছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে ভ্যাকসিন নিয়েছেন ১৮ লাখের বেশি মানুষ। এ নিয়ে দেশটিতে ভ্যাকসিনে ডোজ দেওয়া হলো ১৫ কোটি ৬৮ লাখ মানুষের শরীরে ।

আরসিএন ২৪বিডি। .কম / ২ মে ২০২১
অনলাইন আপডেট : ৩:৪৮ পিএম