যে গোনাহ আল্লাহ কখনো ক্ষমা করবেন না

213

আল্লাহর সঙ্গে কাউকে শরিক করা সবচেয়ে বড় গোনাহ। আল্লাহ তাআলা কখনোই শিরকের গোনাহ ক্ষমা করবেন না। আর সরাসরি আল্লাহর সঙ্গে কাউকে তুলনা করা কিংবা আল্লাহ ছাড়া অন্য কারো ইবাদত করাই হলো শিরক। এটাকে শিরকে আকবার বলা হয়। যা সবচেয়ে বড় কবিরাহ গোনাহ।


এ গোনাহের ধরন হলো এমন-‘যে কোনো প্রকারের ইবাদতকে আল্লাহ ছাড়া অন্য কারো বা কিছুর জন্য নিবেদন করা। যেমন- আল্লাহ ছাড়া অন্য কারো উদ্দেশ্যে বা নামে প্রাণী জবাই করা; প্রভু হিসেবে অন্য কারো ইবাদত করা।

আবার যদি কোনো ব্যক্তি ইবাদতের কিছু অংশে আল্লাহ ছাড়া অন্যের উদ্দেশ্যে করে থাকে তাও শিরক। আল্লাহ তাআলা শিরকে গোনাহের পরিণতি সম্পর্কে ঘোষণা করেন-إِنَّ اللّهَ لاَ يَغْفِرُ أَن يُشْرَكَ بِهِ وَيَغْفِرُ مَا دُونَ ذَلِكَ لِمَن يَشَاء وَمَن يُشْرِكْ بِاللّهِ فَقَدِ افْتَرَى إِثْمًا عَظِيمًا ‘নিঃসন্দেহে আল্লাহ তাআলা তার সঙ্গে শিরক করাকে ক্ষমা করবেন না। তবে শিরক ছাড়া অন্যান্য গোনাহ যাকে ইচ্ছা ক্ষমা করবেন। আর যে লোক আল্লাহর সঙ্গে অংশীদার সাব্যস্ত করে; সে যেন অপবাদ আরোপ করে।’ (সুরা নিসা : আয়াত ৪৮)

আল্লাহ তাআলা শিরক থেকে সম্পূর্ণ মুক্ত। তাঁর কোনো শরিক নেই। তিনি এক ও একক। হাদিসে পাকে প্রিয় নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উম্মতের উদ্দেশ্যে ঘোষণা করেন। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, আল্লাহ তাআলা বলেন-‘আমি অংশিদারিত্ব (শিরক) থেকে সম্পূর্ণ মুক্ত। যে ব্যক্তি কোনো কাজ করে আর ওই কাজে আমার সঙ্গে অন্য কাউকে শরিক করে, আমি সেই ব্যক্তিকে তার শিরকে ছেড়ে দেই।’ (মুসলিম)

মনে রাখতে হবেআল্লাহ তাআলা ৭ শ্রেণির মানুষকে ধ্বংস করে দেবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন বিশ্বনবি। তার মধ্যে প্রথম শ্রেণির মানুষ হলো তারা- যারা আল্লাহর সঙ্গে অন্য কাউকে শরিক করে।তাছাড়া আল্লাহ তাআলা বান্দার সব গোনাহ ক্ষমা করলেও শিরকের গোনাহ ক্ষমা করবেন না বলে কুরআনুল কারিমে সুস্পষ্ট ঘোষণা দিয়েছেন।

যে সময় নিশ্চিত দোয়া কবুল হয়

তাই মুমিন মুসলমানের উচিত, সব সময় শিরক থেকে নিজেকে বাঁচিয়ে রাখা। শিরকমুক্ত ঈমানের অধিকারী হওয়ার চেষ্টা করা। শিরক বর্জন করে পরিচ্ছন্ন ঈমানের অধিকারী হওয়া এবং আল্লাহর ধ্বংস থেকে বেঁচে থাকা। শিরক থেকে বাঁচতে অবসরে বেশি বেশি এভাবে বলা-اَللهُ… اللهُ رَبِّىْ لَا اُشْرِكُ بِهِ شَيْئًاউচ্চারণ : ‘আল্লাহু… আল্লাহু রাব্বি; লা উশরিকু বিহি শাইআ।’
অর্থ : ‘হে আল্লাহ!… আল্লাহ! তুমিই আমার প্রভু! আমি তোমার সঙ্গে কোনো কিছুকেই শরিক করি না।’

আল্লাহর ক্ষমার দৃষ্টান্ত:

মূসা (আ:) এর সময় একবার প্রচন্ড খরা হয়েছিল। একদিন জনবসতির সবাই একত্রিত হলো আকাশের দিকে হাত উঠিয়ে প্রার্থনা করার জন্য।

মুসা (আ:) এবং অন্যরা যখন প্রার্থনা করছিল তখন তারা অবাক হয়ে লক্ষ্য করল, আকাশে কয়েকটি বিক্ষিপ্ত মেঘ অদৃশ্য হয়ে গেল, তাপ উধাও হয়ে গেল, এবং খরাটি আরও তীব্রতর হল।

মুসা (আ:) কে তখন আল্লাহ রাব্বুল আলামীন বললেন,
বনী ইসরাইলের এই গোত্রের মধ্যে একজন পাপী আছে, যে চল্লিশ বছরেরও বেশি সময় ধরে আল্লাহ কে অমান্য করছে। তাকে এই গোত্র থেকে আলাদা করলেই কেবল বৃষ্টি নামবে।

গুনাহ থেকে মুক্তির উপায় জেনে নিন

মুসা (আ:) তখন লোকদের ডেকে বললেন, “আমাদের মধ্যে এমন একজন ব্যক্তি আছেন যিনি চল্লিশ বছর ধরে আল্লাহর অবাধ্য আছে। সে যদি এই জনমন্ডলী থেকে আলাদা হয়ে যায় তখনই আমরা খরা থেকে মুক্তি পাব ও বৃষ্টির দেখা মেলবে।

পাপী ব্যক্তি টি তখন সেখানেই ছিল। সে অপেক্ষা করছিল, বাম ও ডান দিক তাকিয়ে আশা করছিল যে অন্য কেউ এগিয়ে যাবে, কিন্তু কেউ তা করেনি।
লোকটি জানত যে, সে যদি জনমন্ডলীর মধ্যে থাকে তাহলে সবাই মারা যাবে এবং তিনি যদি অগ্রসর হয় তিনি চিরকালের জন্য অপমানিত হবেন।

এ অবস্থায় সে অশ্রু বিগবিগলিত করে প্রার্থনা করল, “হে আল্লাহ! আমার প্রতি দয়া করুন! হে আল্লাহ আমার গুনাহ গোপন করুন! আল্লাহ আমাকে ক্ষমা করুন! “।

মুসা(আ:) ও বনী ইসরাইলের লোকেরা পাপী ব্যক্তিটির এগিয়ে যাওয়ার অপেক্ষা করছিল, কিন্ত হঠাৎ বৃষ্টি বর্ষন শুরু হলো।

মুসা (আ:) আল্লাহ কে জিজ্ঞাসা করলেন, ” হে আল্লাহ, তুমি আমাদের কে বৃষ্টি দিয়ে আশীর্বাদ করেছ যদিও পাপী ব্যক্তিটি এগিয়ে আসেনি।
.
আল্লাহ রাব্বুল আলামীন উত্তর দিলেন, সেই ব্যক্তিটির অনুতাপের জন্যই আমি বৃষ্টি দিয়ে আশীর্বাদ করেছি।
মুসা ( আ:) জানতে চাইলে কে সেই সৌভাগ্যবান ব্যক্তি টি?

আল্লাহ তায়ালা বললেন, “হে মুসা আমি চল্লিশ বছর যাবত তার গুনাহ গোপন করেছি, তোমরা কি মনে কর তার অনুতাপের পর ও তাকে আমি প্রকাশ করব”?

-কিতাবুত্তাওয়াবিন; পৃষ্ঠাঃ ৬৮, জিবালুল জুনুব; পৃষ্ঠাঃ ১০১

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে শিরকমুক্ত ঈমানের অধিকারী হওয়ার তাওফিক দান করুন।আমাদের শিরক থেকে ঈমানকে হেফাজত করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

  • রংপুরে বাসচাপায় অটোরিকশার ৪ যাত্রী নিহত

    রংপুরে একটি যাত্রীবাহী বাসের চাপায় অটোরিকশার ৪যাত্রী নিহত হয়েছেন।

    রবিবার (২৩ জানুয়ারি) সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে মহানগরীর নবীগঞ্জ এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগ ও ফায়ার সার্ভিস সূত্র দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

    তাৎক্ষণিকভাবে হতাহতদের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

    আরসিএন ২৪বিডি.কম / ২৩ জানুয়ারি ২০২২a

    একই খবর অন্য পত্রিকায় পড়ুন

  • রংপুর বিভাগে ১৬৫ জনের করোনা শনাক্ত

    রংপুর বিভাগের ৮জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে।

    গত ২৪ ঘণ্টায় ১৬৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে, যা গত ৭ মাসে সর্বোচ্চ। মারা গেছেন একজন। আক্রান্তদের মধ্যে ১২ জন আইসিইউতে ভর্তি।তাদের চার জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ৩৬ দশমিক ৫৯ শতাংশ।

    আজ রবিবার (২৩ জানুয়ারি) দুপুরে রংপুর বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক ডা. আবু মো. জাকেরুল ইসলাম এসব তথ্য জানান।বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় মোট ৪৫১ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়।

    তার মধ্যে দিনাজপুরের ৩৪, রংপুরের ২২, পঞ্চগড়ের ১৯, নীলফামারীর ১৯, ঠাকুরগাঁওয়ের ৩৭, লালমনিরহাটের ৬, কুড়িগ্রামের ৮ জন ও গাইবান্ধার ২০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

    রংপুর বিভাগে করোনা সংক্রমণ প্রতিদিনই বাড়ছে। বিশেষ করে প্রথম দিকে বিভিন্ন জেলায় কম থাকলেও, এখন সব জেলায় ব্যাপকভাবে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে।

    ডা. জাকেরুল ইসলাম জানান, ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তদের মধ্যে ১২ জনকে দিনাজপুর আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়েছে।

    আরসিএন ২৪বিডি.কম / ২৩ জানুয়ারি ২০২২

    একই খবর অন্য পত্রিকায় পড়ুন

  • কালীগঞ্জে শিক্ষকের বাড়ি থেকে গৃহকর্মীর লাশ উদ্ধার

    লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলায় স্কটল্যান্ডপ্রবাসী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকের বাড়ি থেকে এক গৃহকর্মীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

    আজ রবিবার (২৩ জানুয়ারি) দুপুরে উপজেলার কাকিনাবাজার এলাকায় প্রবাসী শিক্ষক ড. মোজাম্মেল হকের বাড়ি থেকে মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

    মৃত গৃহকর্মী টাঙ্গাইলের মধুপুরের রাধাপাল গ্রামের বাসিন্দা।জানা যায়, বাড়ির মালিক স্কটল্যান্ডের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক পদে কর্মরত। তিনি কাকিনা উত্তরবাংলা কলেজের প্রতিষ্ঠাতা। তিনি স্কটল্যান্ডের গ্লাসগোভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংগঠন চ্যারিটি ইন্টারন্যাশনালের চেয়ারম্যান। বর্তমানে কাকিনার বাড়িতেই অবকাশ যাপন করছিলেন।

    স্থানীয় সূত্রে জানা যায় , ২০ বছর ধরে স্কটল্যান্ডের গ্লাসগো শহরের অধিবাসী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অর্থনীতিবিদ ড. মোজাম্মেল হকের কাকিনাস্থ বাড়িতে গৃহকর্মী হিসেবে কাজ করছেন ওই নারী। প্রতিদিনের মতো গত শনিবার রাতের কাজ শেষ করে নিজের রুমে ঘুমিয়ে পড়েন ওই গৃহকর্মী।

    আজ সকালে তার কোনো সাড়াশব্দ না পেয়ে অন্য গৃহকর্মীরা জানালা ভেঙে তার মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয়।পুলিশ দুপুরে মরদেহ উদ্ধার করে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে মরদেহ লালমনিরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

    এ ঘটনায় কালীগঞ্জ থানায় অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।কালীগঞ্জ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম রসুল বলেন, মৃত গৃহকর্মীর শরীরে তেমন কোনো আঘাতের চিহ্ন নেই। তাই মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানতে মরদেহ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

    আরসিএন ২৪বিডি.কম / ২৩ জানুয়ারি ২০২২

    একই খবর অন্য পত্রিকায় পড়ুন

  • নাটোরে স্বামীর হাতে স্ত্রী ও সন্তান খুন

    নাটোরে স্বামীর হাতে স্ত্রী ও সন্তান খুন হওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত স্বামী আব্দুস সাত্তারকে আটক করেছে নাটোর থানা পুলিশ।

    আজ রবিবার (২৩ জানুয়ারি) দুপুরে শহরের চৌকিরপাড়া মহল্লায় এ ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, পারিবারিক কলহের জের ধরে এ খুনের ঘটনা ঘটেছে।

    নাটোর থানার ওসি আবু সাদাদ জানান, অন্য নারীর সাথে স্বামীর পরকীয়ার জের ধরে সৃষ্ট কলহের জেরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। আব্দুস সাত্তার নিজে তার স্ত্রী মাসুরা বেগম ও তাদের ছোট কন্যাসন্তানকে হত্যা করেছেন।পুলিশ মরদেহ উদ্ধারে করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে নিয়েছে বলে জানান তিনি।

    আরসিএন ২৪বিডি.কম / ২৩ জানুয়ারি ২০২২

    একই খবর অন্য পত্রিকায় পড়ুন

  • এসআইর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি

    পঞ্চগড়ের এক বিধবা নারীকে (৩৬) বিয়ের প্রোলভন দেখিয়ে ধর্ষণ ও ভূয়া বিয়ে করে প্রতারণার দায়ে কুড়িগ্রাম থানার এসআই আব্দুল জলিলের (৪৫) বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

    আজ রবিবার (২৩ জানুয়ারি) দুপুরে পঞ্চগড় বিজ্ঞ, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালের বিচারক মেহেদী হাসান তালুকদার এসআই আব্দুল জলিলকে গ্রেফতারের নির্দেশ দিয়েছেন।

    জানা যায়, এসআই আব্দুল জলিল গাইবান্ধা জেলার উত্তর ফুলিয়া সদর এলাকার আব্দুল শুকুর আলীর ছেলে। সে কুড়িগ্রাম সদর থানায় কর্মরত রয়েছেন।

    ভূক্তভোগী ওই বিধবা নারী অভিযোগ করে বলেন, আমার সাথে বিভিন্ন প্রতারণা করেছে সে। আমি এ ঘটনায় মামলা দায়ের করলে সে বিভিন্ন ভাবে হুমকি প্রদান শুরু করে। যাতে করে কোন মা-মেয়ে পুলিশের এমন নির্যাতনের শিকার না হয়, আমি ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই।

    আরসিএন ২৪বিডি.কম / ২৩ জানুয়ারি ২০২২

    একই খবর অন্য পত্রিকায় পড়ুন


আরসিএন২৪বিডি. কম/ ৫ নভেম্বর ২০২১