ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়: ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আগমনের সময়ে যে প্রতিবাদ কর্মসূচি হয়। আর সে সময়ে গ্রেফতার হওয়া ছাত্র-জনতার নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানিয়েছেন ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর। অন্যথায় গণভবনের সামনে ঈদ করার ঘোষণা দিয়েছেন এই সাবেক ভিপি নুর ।

সোমবার (৩ মে) কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আটক ভুক্তভোগী পরিবার ও নাগরিক সমাজের অবস্থান কর্মসূচিতে এসব কথা বলেন ভিপি নুর ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল, অধ্যাপক দিলারা চৌধুরী, আলোকচিত্রী শহিদুল আলম প্রমুখ।

আটক ভুক্তভোগী পরিবার ও নাগরিক সমাজের অবস্থান কর্মসূচি

নুর বলেন, আপনার (প্রধানমন্ত্রী) বাবা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীদের জন্য আন্দোলন করে বহিষ্কার হয়েছিলেন। কাজেই আপনারই সবচেয়ে ভালো বুঝা উচিত ছিল যে, ছাত্ররা কখনো অযৌক্তিক, অপ্রাসঙ্গিক বিষয় নিয়ে কথা বলেন না, আন্দোলন করেন না। আমরা জাতীয় স্বার্থে কথা বলেছিলাম। আমরা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখার জন্য একজন সাম্প্রদায়িক ব্যক্তির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করেছিলাম। আমি আপনাকে আপনার বাবার কথা মনে করিয়ে বলতে চাই, আপনি যদি আপনার বাবার প্রকৃত আদর্শ ধারণ করেন তাহলে ছাত্রনেতাদের অতিদ্রুত মুক্তি দিবেন। আমরা ছাত্রনেতারা পরিবারসহ সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে, আমাদের ভাইবোনদের যদি মুক্তি দেওয়া না হয়, তাহলে আমাদের ঈদ হবে গণভবনের সামনে।

গ্রেফতাদের হয়রানি করা হচ্ছে উল্লেখ করে নুর আরো বলেন, আমাদের ছাত্রনেতাদের গরুর মত বেঁধে আদালতে হাজির করা হয়েছে। আবার কয়েকজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে যাদের নামে কোনো মামলাও ছিল না। রিমান্ড শেষে আদালতে তোলা হলে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠান। আবার দু-তিন মামলায় জড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে যাতে তারা জামিন আবেদন না করতে পারে বা জামিন নিতে দেরি হয়।

আরসিএন ২৪ বিডি। .কম / জি এম
অনলাইন আপডেট সময়: ৫:৩২ পিএম , মে ৩, ২০২১