স্টাফ রিপোর্টার

সিলেটে ইফতারকে কেন্দ্র করে শরিফা বেগম (২১) নামে এক নববধূকে হত্যার অভিযোগ পাওয়া যায়। হত্যার পর এ ঘটনায় নিহতের স্বামী ও শ্বাশুড়িকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার (০৮ মে) সিলেটের ওসমানীনগর উপজেলার উসমানপুর ইউনিয়নের তাহিরপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে জানা যায়। খবর পাওয়ার পর পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে সিলেটের ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

পুলিশের দেয়া তথ্যমতে জানা গেছে, নিহত শরিফা বেগম (২০) সিলেটের হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার পুটিয়া এলাকার শাকিম উল্যার মেয়ে এবং সিলেটের উসমানপুর ইউনিয়নের তাহিরপুর এলাকার আরশ আলীর স্ত্রী। এই হত্যাকান্ডের ঘটনায় আটককৃতরা হল- নিহত শরিফার স্বামী আরশ আলী ও নিহত শরিফার শাশুড়ী মিনারা বেগম।

নিহত শরিফার বাবার বাড়ির অভিযোগ, রমজান মাস্কে উপলক্ষ করে গত শুক্রবার শরিফার বাড়িতে তারা ইফতার সামগ্রী পাঠায়।
এতে স্বামীর জন্য ইফতারের পৃথক থালা সাজানো না থাকায় এবং ঈদুল ফিতরে শ্বশুর বাড়ি থেকে নতুন জামা-কাপড় না দেওয়ায় স্বামী ও শাশুড়ির অমানবিক নির্যাতনে মারা যায় সাত মাসের অন্তঃসত্তা শরিফা।

শনিবার দুপুরে নিহতের মরদেহ তার ঘরের বিছানা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। নিহতের শরীরে একাধিক আঘাতের চিহ্ন ও গুরুতর জখম পাওয়া গেছে বলে জানা যায়।

সিলেটের ওসমানীগর অফিসার ইনচার্জ শ্যামল বনিক বলেন, খবর পাওয়ার পর পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ওসমানী মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠান। সুরতহালে মরদেহে একাধিক আঘাতের চিহ্ন ও গিরুতর জখম পাওয়া যায়। এ কারণে নিহত শরিফার স্বামী ও শাশুড়িকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে বলে জানা যায়।

এছাড়াও তিনি আরো বলেন, এ হত্যাকান্ডের বিষয়ে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

অনলাইন আপডেট : ৯ মে ,২০২১
আরসিএন২৪বিডি.কম
কবির চৌধুরি জয়