কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার ভারত সীমান্ত সংলগ্ন জামালপুরে মাদক ব্যবসা নিয়ে বিরোধে ফাহমিদ হোসেন (৪২) নামের সৎভাইকে গলা কেটে হত্যা করেছেন আরেক ভাই।

আজ রবিবার (১১ এপ্রিল ২০২১) সকাল ৭টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। তিনি জামালপুর গ্রামের আবদুস সাত্তার ওরফে মন্ডলের ছেলে।ঘটনাস্থান থেকে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে পাঠিয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, জামালপুর গ্রামের দু’দল মাদক ব্যবসা করে। মাদক ব্যবসা নিয়ে দু’দলের ব্যবসায়ীর মধ্যে বিরোধের জেরে আজ রবিবার (১১ এপ্রিল ২০২১) সকালে ফাহমিদ বাড়ির পাশের একটি চায়ের দোকানে বসে চা পান করছিলেন। এ সময় তার সৎভাই মিলন হোসেন পেছন থেকে দা দিয়ে ফাহমিদের ঘাড়ে কোপ দিলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।হত্যা করার পর হত্যাকারী মিলন সীমান্ত পার হয়ে ভারতে পালিয়ে যান।

দৌলতপুর থানার পরিদর্শক শাহাদত হোসেন জানান, ফাহমিদ ও মিলন দুজনই মাদক ব্যবসার সঙ্গে জড়িত বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। দুই পক্ষের মাদক ব্যবসার বিরোধের জের ধরে এই হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। নিহত ফাহমিদও ভালো মানুষ ছিলেন না।তিনি একটি হত্যা মামলার আসামি। পূর্বে একটি হত্যা মামলায় ভারতের কারাভোগের বন্ধি থাকার পর মুক্ত হয়ে গত বছর তিনি দেশে ফিরে আবার মাদক ব্যবসা শুরু করেছিলেন।

অনলাইন আপডেট : ১১ এপ্রিল, ২০২১
আরসিএন২৪বিডি.কম
মেরাজ হৃদয়