পীরগাছা :মা-মেয়েকে গাছে বেঁধে নির্যাতন

84

রংপুরের পীরগাছা উপজেলায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে মা-মেয়েকে গাছে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। গত বুধবার উপজেলার পারুল ইউনিয়নের অনন্দি ধনিরাম গ্রামে ঘটনাটি ঘটলেও একটি ভিডিও শুক্রবার দুপুরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে।

নির্যাতনের শিকার মা গোলাপী বেগম ও মেয়ে রাবেয়া বেগম ওই গ্রামের সাজাহান মিয়ার স্ত্রী ও কন্যা। এ ঘটনায় মামলা করা হয়েছে।

পুলিশ বলছে আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।
মামলার এজাহার ও ভুক্তভোগীর পরিবার সূত্রে পাওয়া , বহুদিন থেকে সাজাহান মিয়ার সঙ্গে প্রতিবেশী গোফ্ফার মিয়ার ছেলে জিয়ারুল মিয়ার জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলছিল। গত বুধবার সকালে জিয়ারুল ও তার লোকজন সাজাহানের জমি দখল করে গাছ ও রাস্তা কাটতে থাকেন।

এ সময় সাজাহান ও তার পরিবারের লোকজন বাঁধা দেয়।

এতে জিয়ারুল ও তার লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে সাজাহানের স্ত্রী গোলাপী বেগম ও মেয়ে রাবেয়া বেগমকে গাছে বেঁধে নির্যাতন চালায়। পরে স্থানীয়রা ৯৯৯ এ ফোন দিলে ঘটনাস্থল থেকে আহত অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে পীরগাছা থানা পুলিশ। বর্তমানে তারা স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
সাজাহান মিয়া জানান, তারা জমি দখলে ব্যর্থ হয়ে আমার স্ত্রী ও মেয়েকে গাছে বেঁধে নির্যাতন চালায় প্রতিবেশী জিয়ারুল ও তার লোকজন।

পীরগাছা থানার ওসি (তদন্ত) শুকুর মিয়া এ বিষয়ে নিশ্চিত করে জানান, জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে এমনি ঘটনা ঘটেছে। তবে এ বিষয়ে মামলা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা করছে পুলিশ ।

আরসিএন২৪বিডি / ১৫ জানুয়ারি ২০২২