অস্ত্র আইনে করা মামলায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের গাড়িচালক আবদুল মালেক ওরফে বাদলের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত। এর মধ্য দিয়ে এ মামলার আনুষ্ঠানিক বিচারকাজ শুরু হলো। এর মধ্য দিয়ে মামলায় তার বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক বিচার শুরু হলো। একইসঙ্গে আগামী ৫, ৬, ৭ ও ৮ এপ্রিল সাক্ষগ্রহণের তারিখ ধার্য করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১১ মার্চ) ঢাকা মহানগর বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক কে এম ইমরুল কায়েশ এই আদেশ দেন। আদালতে মালেকের পক্ষে তার আইনজীবী আব্দুল মান্নান অব্যাহতি চেয়ে শুনানি করেন। রাষ্ট্রপক্ষ সংশ্লিষ্ট আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর তাপস কুমার পাল এর বিরোধিতা করে করে চার্জ গঠনের প্রার্থনা করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত আসামির বিরুদ্ধে চার্জগঠন করে সাক্ষগ্রহণের তারিখ ধার্য করেন।এর আগে গত ১৪ ফেব্রুয়ারি একই আদালত মালেকের বিরুদ্ধে চার্জশিট গ্রহণে করেন।

গত ১১ জানুয়ারি মামলার তদন্ত কর্মকর্তা র‌্যাব-১ এর এসআই মেহেদী হাসান চৌধুরী চার্জশিট দাখিল করেন।গত বছরের ২০ সেপ্টেম্বর ভোরে রাজধানীর তুরাগ এলাকা থেকে মালেককে গ্রেফতার করা হয়।

এ সময় তার কাছ থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, একটি ম্যাগাজিন, পাঁচটি গুলি, দেড় লাখ টাকার বাংলাদেশি জাল নোট, একটি ল্যাপটপ ও মোবাইল জব্দ করা হয় বলে র‌্যাব জানিয়েছে।

র‌্যাব জানায়, রাজধানীর তুরাগ এলাকায় আব্দুল মালেক ওরফে ড্রাইভার মালেক অবৈধ অস্ত্র ব্যবসা, জাল টাকার ব্যবসা ও চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িত। ওই এলাকায় তিনি সাধারণ মানুষকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছেন। এমন অভিযোগ পাওয়ার পর র‌্যাব তদন্ত করে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় তুরাগের কামারপাড়ার বামনের টেক এলাকার ৪২ নম্বর হাজি কমপ্লেক্স নামের সাততলা ভবনের তৃতীয় তলা থেকে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

আরসিএন ২৪বিডি. কম / ১১ মার্চ ২০২১