করোনা ভাইরাসে গত

 


এই ভাইরাসে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন এক হাজার ৮৮৪ জন। এখন পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে চার লাখ ৮৭ হাজার ৮৪৯ জনে।

শুক্রবার (১১ ডিসেম্বর) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ঢাকা সিটিসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ও বাড়িতে উপসর্গ বিহীন রোগীসহ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন তিন হাজার ৮৬৬ জন।
এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন চার লাখ ১৪ হাজার ৩১৮ জন। সারাদেশে সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ১৪০টি ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা হয়েছে।
এর মধ্যে আরটি-পিসিআর ল্যাব ১১২টি, জিন-এক্সপার্ট ১৮টি, র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন ১০টি। এসব ল্যাবে ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ১৬ হাজার ৬৪৪টি। মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১৬ হাজার ৩২৩টি। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ২৯ লাখ ৪৪ হাজার ২৫২টি।
এতে আরও জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার হার ১১ দশমিক ৫৪ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ৫৭ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮৪ দশমিক ৯৩ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৪৩ শতাংশ।

বিজ্ঞপ্তিতে নাসিমা সুলতানা জানান, ২৪ ঘণ্টায় মৃত ১৯ জনের মধ্যে ১৩ জন পুরুষ ও নারী ছয় জন। এদের মধ্যে রয়েছেন ঢাকা বিভাগে ১২ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে চার জন। এছাড়া রাজশাহী, বরিশাল ও রংপুর বিভাগে এক জন করে তিন জন। এদের মধ্যে হাসপাতালেই মারা গেছেন ১৯ জন।

মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৬০ বছরের ঊর্ধ্বে ১১ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে দুই জন, ৪১ থেকে ৫৯ বছরের মধ্যে চার জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে একজন, ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে এক জন রয়েছেন।
তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন ১৯৭ জন ও আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ২৪০ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে এসেছেন ৯৩ হাজার ৫৩৮ জন। আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র নিয়েছেন ৮০ হাজার ৯২৮ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১২ হাজার ৬১০ জন।

আরসিএন ২৪বিডি. কম , ডিসেম্বর ১১, ২০২০