রংপুরে এবার টিসিবির পণ্য বের হলো বক্সখাটের ভিতর থেকে

রংপুরে টিসিবির পণ্য মজুদ রাখার ঘটনা একের পর এক ঘটে যাচ্ছে যেমন, তেমনি রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়ে টিসিবির পণ্য উদ্ধার করছে প্রতিদিন ।

১৫ এপ্রিল ( বুধবার ) রাত পৌনে এগারোটার দিকে রংপুর নগরীর পার্বতীপুরে এক বাসা থেকে অবৈধভাবে মজুদ রাখা বিপুল পরিমাণ টিসিবির সয়াবিন তেল উদ্ধার করেছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। এ সময় লাল মিয়া ও হানিফ নামে দুই জনকে আটক করা হয়েছে।

নগরীর মধ্য পার্বতীপুর এলাকার হানিফ মিয়ার বাড়ি থেকে টিসিবির ন্যায্যমূল্যের ১ হাজার ২৩৮ লিটার ভোজ্যতেল উদ্ধার করা হয়।
বিষয়টি নিশ্চিত করেন রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি এন্ড মিডিয়া) উত্তম প্রসাদ পাঠক।

তিনি জানান, বুধবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নগরীর ১৭নং ওয়ার্ডের মধ্য পার্বতীপুর এলাকার একটি বাসায় অভিযান চালায় ডিবি পুলিশ। এসময় বাসার ভিতরে অভিনব কায়দায় বক্স খাটের ভিতরে রাখা টিসিবির ২ লিটার তেলের ২৫৯টি এবং ৫ লিটারের ১৪৪টি বোতল উদ্ধার করা হয়।

উদ্ধার কৃতঃ ১২৩৮ লিটার সয়াবিন তেলের অনুমানিক মূল্য ৯৯ হাজার ৪০ টাকা।

এসময় বাসার মালিক হানিফ মিয়াকে (৫৮) ও মালামাল সরবরাহকারী লাল মিয়াকে (৫২) আটক করে পুলিশ।

আটক ব্যক্তিরা অবৈধ লাভের জন্য বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে টিসিবির ডিলারদের কাছ থেকে এসব পণ্য কম দামে ক্রয় করে মজুদ করে রেখেছিলেন। তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জানান উত্তম প্রসাদ পাঠক।

"রংপুরে এবার টিসিবির পণ্য বের হলো বক্সখাটের ভিতর থেকে "
টিসিবির পণ্য বের হলো বক্সখাটের ভিতর থেকে

এদিকে সরকারি পণ্য কালোবাজারে বিক্রির সাথে অন্য কেউ জড়িত রয়েছে কিনা, তা অনুসন্ধান করতে আটকদের সাথে নিয়ে রাতে আরও অভিযান চালানো হবে বলে জানা গেছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ সূত্রে।

করোনা ভাইরাসের প্রভাবে বিপর্যস্ত গরিব-দুঃখী মানুষের জন্য সরকার টিসিবির ন্যায্যমূল্যে পণ্য ডিলারদের মাধ্যমে বিক্রয় করছে। কিন্তু রংপুর নগরীর কিছু অসাধু ব্যবসায়ী অবৈধ লাভের উদ্দেশ্যে তা মজুদ করে রাখছেন।
আরপিএমপির ডিবির অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার উত্তম প্রসাদ পাঠক বলেন, “টিসিবির পণ্য যারা অবৈধভাবে মজুদ করছে তাদের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে।”

আরসিএন ২৪ বিডি ডট কম / ১৬ এপ্রিল ২০২০
অনলাইন আপডেট – ১২: ৪৩ এ এম