করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন মানুষের উপর পরীক্ষা করার অনুমতি পেয়েছে চারটি প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠান গুলো হলো লাকি স্ট্রাইক, ডানহিল, রোথম্যানস এবং বেনসন অ্যান্ড হেজেস ব্র্যান্ডের সিগারেট প্রস্তুতকারী ব্রিটিশ-আমেরিকান টোবাকো (বিএটি)। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন (এফডিএ) এই অনুমোদন দিয়েছেন।

প্রাপ্তবয়স্ক স্বেচ্ছাসেবকদের উপর ক্লিনিকাল ট্রায়ালের জন্য এই অনুমতি দেয় এফডিএ। দ্য গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে জানা গেছে।

এতে বলা হয়েছে, যদিও এরইমধ্যে বড় বড় ওষুধ সংস্থাগুলো ইতিমধ্যে ভ্যাকসিন তৈরি করছে।

বিএটি জানিয়েছে, প্রচলিত পদ্ধতি ব্যবহার করে যে কয়েক মাস লাগে তার চেয়ে ছয় সপ্তাহের আগে উত্পাদনে যাওয়া যাবে। বিএটি ভ্যাকসিনটি ঘরের তাপমাত্রায় রাখা যাবে। আর যুক্তরাজ্যে ফাইজার ও বায়োএনটেক ভ্যাকসিন নির্দিষ্ট তাপমাত্রা সংরক্ষণ এবং পরিবহন করতে হবে।

ভ্যাকসিনটি উৎপাদনে বিএটি’র বায়োটেকনোলজি বিভাগ ও কেন্টাকি বায়োপ্রসেসিং যৌথভাবে কাজ করছে। এর আগে ইবোলার চিকিত্সায় তারা একসঙ্গে কাজ করেছে।

চলতি বছরের এপ্রিলে করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন তৈরির ঘোষণা দিয়েছে বিএটি। তারা জানায়, তামাক জাতীয় উদ্ভিদ ব্যবহার করে ৩০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন তৈরি করবে।

প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে জানানো হয়, টেকসই উদ্ভিদের বিকাশের জন্য একটি সম্ভাব্য করোনভাইরাস ভ্যাকসিন তৈরি করা সম্ভব। সেটিই তৈরি করার চেষ্টা করে যাচ্ছি।

ব্রিটিশ আমেরিকান টোবাকোর বৈজ্ঞানিক গবেষণাবিষয়ক পরিচালক ড. ডেভিড ও’রিলি বলেন, করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন তৈরির বিষয়টি অনেক জটিল এবং চ্যালেঞ্জিং। কিন্তু আমরা বিশ্বাস করি যে, আমরা আমাদের তামাক উদ্ভিদ প্রযুক্তি প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি অর্জন করেছি।

বিএটি জানিয়েছে, উদ্ভিদভিত্তিক ভ্যাকসিন তৈরি করাসহ তামাক গাছের বিকল্প ব্যবহারের দিকে নজর দিচ্ছে কেন্টাকি বায়োপ্রসেসিং (কেবিপি)। কোনো ধরনের লাভ ছাড়াই প্রতিষ্ঠানটি করোনা ভ্যাকসিন তৈরি করবে। এর আগেও ২০১৪ সালের দিকে ইবোলার ভ্যাকসিন তৈরিতে কেবিপি সহযোগিতা করেছিল।

জয়পুরহাটে ট্রেন দুর্ঘটনা:তদন্ত কমিটি গঠন

অরসিএন ২৪ বিডি.কম / ২০ ডিসেম্বর ২০২০
অনলাইন আপডেট : ৮:২৮ এ এম
সূত্রে : অনলাইন