ভালোবাসা কোন বাধা মানে না । ভালোবাসা কোনও জাত ধর্ম কিংবা বর্ণ কোনো কিছুই বাধা হতে পারে না । যেমনটা হয়েছে বাংলাদেশের শাহাদাত হোসেনের সঙ্গে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কৃষ্ণাঙ্গ তরুণী জোনস্ জিউনাবচনের বিয়ে।

প্রেমের টানে ইউরোপের মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে কৃষ্ণাঙ্গ এই তরুণী বাংলাদেশে ছুটে আসেন। তারপর নিজের বান্ধবীর স্বামীর বড়ভাইকে বিয়ে করেন।

শনিবার (০৫ জুন) দুপুরে চাঁদপুর সদরের আশিকাটি ইউনিয়নের রালদিয়া গ্রামে এই বিয়ে অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। কন্যা জোনস শাহাদাতের যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী ছোট ভাইয়ের স্ত্রীর বান্ধবী।

চাঁদপুর সদর উপজেলার রালদিয়া গ্রামের প্রধানিয়া বাড়িতে এই বিয়ের আয়োজন সম্পন্ন হয়। তবে বিয়েতে বরের বাড়িতে তার আত্মীয়-বন্ধুরা উপস্থিত থাকলেও কনে একাই ছিল।

এদিকে, প্রেমের টানে মার্কিন তরুণীর চাঁদপুরে আসার বিষয়টি এলাকায় ব্যাপক আলোচনার জন্ম দিয়েছে। উৎসুক জনতা এই নবদম্পতিকে দেখার জন্য বিয়েবাড়িতে ভিড় জমায়। বিদেশি বউ গ্রামের বাড়িতে। এমন দৃশ্য দেখতে শনিবার (৫ জুন) বিকেল থেকেই প্রধানিয়া বাড়িতে অনেক নারী পুরুষ ভিড় করেন।

স্বজনদের থেকে জানা যায়, শাহাদাতের ছোট ভাই আবু জাফর দুবাইয়ে থাকতেন। তখন আবু জাফর সঙ্গে এক মার্কিন নারীর প্রেম হয়। পরে তারা ২জন যুক্তরাষ্ট্রে চলে যান বিয়ে করে । এরই সূত্র ধরে আবু জাফরের স্ত্রীর বান্ধবী জোনস জিউনাবচনের সঙ্গে মালয়েশিয়ায় থাকা অবস্থায় শাহাদাতের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। পরে ২ জন বিয়ের পরিকল্পনা করেন । কয়েকদিন আগে তারা ২জন বিয়ের জন্য দেশে আসেন। কিছুদিনের মধ্যে তারা ২ জন আবার বিদেশে চলে যাবেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গতকাল শনিবার (৫জুন) দুপুরে নিজ বাড়িতে সীমিত পরিসরে আত্মীয় স্বজন উপস্থিতিতে শাহাদাত হোসেন আমেরিকার নাগরিক তার প্রেমিকা জোনস্ জিউনাবচনকে ইসলামি শরিয়া মোতাবেক বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।

"গুগল নিউজ এ রংপুর ক্রাইম নিউজের সর্বশেষ খবর পড়তে ক্লিক করুন"
গুগল নিউজ এ রংপুর ক্রাইম নিউজের সর্বশেষ খবর পড়তে ক্লিক করুন।

চাঁদপুর সদরের সকল নিউজ পেতে ক্লিক করুন : আরসিএন ২৪বিডি ডট কম

বিয়ে সম্পন্ন হওয়ার পর বর শাহাদাত হোসেন ও নববধূ জোনস্ জিইনাবচন প্রাথমিক এক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, বেশ কয়েক বছরের আমাদের ভালোবাসা। তবে এই সম্পর্কটা কবে কিভাবে কখন কোথায় হলো। সেই গল্প আজ নয়, পরে একসময় জানাবো। সবশেষে আগামী দিনগুলো যেনো সুখের হয় তার জন্য তারা ২জন দোয়া প্রার্থনা করেন।

আশিকাটি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বিল্লাল হোসেন মাস্টার আলোচিত এই বিয়ে সম্পর্কে বলেন, বিয়েতে আমি যোগ দিতে পারিনি কিন্তু ঘটনাটির সম্পর্কে অবগত রয়েছি।

চাঁদপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রশিদ বলেন, ১ জন বিদেশি নারীর সঙ্গে এমন বিয়ের আয়োজন। তবে বিষয়টি পুলিশ কিংবা প্রশাসন অবগত নয়। তারপরও এই ব্যাপারে বিস্তারিত জানতে খোঁজ খবর নেওয়া হচ্ছে।

জুন ০৬, ২০২১
আরসিএন ২৪বিডি ডট কম
আমাদের সকল নিউজ :RCN24bd.com