সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে বিদেশে নিয়ে উন্নত চিকিৎসা করার জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের কাছে আবেদন করেছেন খালেদা জিয়ার ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দার। তবে আবেদনপত্রটি পর্যালোচনার জন্য আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

বুধবার (৫ মে) রাত ১১টার দিকে ধানমন্ডির নিজ বাসায় সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

খালেদা জিয়া

এর আগে রাত সাড়ে ৮টার দিকে খালেদা জিয়ার ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দার আবেদন নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন ।

তার লিখিত আবেদন প্রেক্ষিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ‘বেগম খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে নেওয়ার দরকার হলে সরকার সেটা ইতিবাচক দৃষ্টিতে বিবেচনা করবে।’ আবেদনটি দ্রুততম সময়ের মধ্যে আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে বলেও গণমাধ্যমকে জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

এদিকে জানা যায়, রাত সাড়ে ৮ টায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে দেওয়া লিখিত আবেদনটি তাৎক্ষণিক আইন সচিবের কাছে পাঠানো হয়েছে ।

উল্লেখ্য, গত ১০ এপ্রিল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। এরপর তাকে বক্ষব্যাধি ও মেডিসিন বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. এফ এম সিদ্দিকীর নেতৃত্বে ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের সমন্বয়ে মেডিক্যাল টিম গঠন করে তার বাসায় রেখে চিকিৎসা দেওয়া হয়। ১৫ এপ্রিল এভার কেয়ার হাসপাতালে তার সিটি স্ক্যান করানো হয়। সিটি স্ক্যানে রিপোর্ট ভালো আসে।

কিন্তু করোনা আক্রান্ত হওয়ার ১৪ দিন পর গত ২৪ এপ্রিল দ্বিতীয়বার পরীক্ষা করা হলে তার রিপোর্ট আবার পজিটিভ আসে।
পরে ২৭ মে তাকে এভারকেয়ার হাসপাতালের ননকোভিড জোনে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া শুরু হয়। এরপর ৩ মে খালেদার শ্বাসকষ্টের সমস্যা বেড়ে যাওয়ায় ওই হাসপাতালের সিসিউইতে (করোনারি কেয়ার ইউনিট) নেওয়া হয়।

সেইদিন রাতেই দলীয় ও পারিবারিকভাবে খালেদা জিয়াকে বিদেশ নিয়ে চিকিৎসা করানোর সিদ্ধান্ত হয়।

আরসিএন২৪বিডি. কম / ৬ মে ২০২১

অনলাইন আপডেট টাইম : ১:১০ এ এম